নিজস্ব প্রতিবেদক : ২৩ মার্চ মঙ্গলবার দুপুর ১২ টায় বান্দরবান সদরের অনন্যা কল্যাণ সংগঠন এর সভা কক্ষে আন্তর্জাতিক নারী দিবস উপলক্ষে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বান্দরবান পার্বত্য জেলার জেলা প্রশাসক ইয়াসমিন পারভিন তিবরীজি। ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের অর্থায়নে পরিচালিত আমাদের জীবন, আমাদের স্বাস্থ্য, আমাদের ভবিষ্যৎ (ওএলএইচএফ) প্রকল্পের উদ্যোগে আয়োজিত সভায় সম্মানিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সমাজ সেবা অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক মিল্টন মুহুরী,

বক্তব্য রাখছেন সভার প্রধান অতিথি জেলা প্রশাসক ইয়াসমিন পারভিন তিবরীজি।

যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক সাইফুদ্দিন মোহাম্মদ হাসান আলী, মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক আতিয়া চৌধুরী, সহকারী কমিশনার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. কায়েসুর রহমান। ‘করোনাকালে নারী নেতৃত্ব নেতৃত্ব, গড়বে নতুন সমতার বিশ্ব’ এই প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে আয়োজিত সভায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন গ্রাউস’র চেয়ারপার্সন মংথুইচিং মারমা।

স্বাগত বক্তব্য রাখছেন গ্রাউস’র চেয়ারপার্সন মংথুইচিং মারমা।

অনন্যা কল্যাণ সংগঠনের নির্বাহী পরিচালক ডনাই প্রু নেলী’র সভাপতিত্বে সভায় অন্যান্যের মধ্যে বাংলাদেশ নারী প্রগতি সংঘ’র মাস্টার ট্রেইনার সুমিত বণিক, তহজিংডং’র প্রজেক্ট ডিরেক্টর মো. জিয়া উদ্দিন, একেএস’র প্রজেক্ট ডিরেক্টর দীনেন্দ্র ত্রিপুরা, প্রকল্প সমন্বয়কারী রমেশ চন্দ্র তঞ্চঙ্গ্যা এবং

সভা সঞ্চালনা করছেন একেএস’র নির্বাহী কমিটির সদস্য হোসনে আরা খানম ।

প্রকল্পের কর্মকতা, কর্মীবৃন্দ, সাংবাদিক কৌশিক দাস, অনলাইন পত্রিকা খোলাচোখ’র প্রতিনিধি এস, বিকাশ চাকমা, মো. জুয়েলসহ প্রকল্পের মেন্টর, কিশোরী, কারবারি, মায়েরদের প্রতিনিধিগণ সভায় উপস্থিত ছিলেন।

প্রকল্পের কার্যক্রম উপস্থাপন করছেন একেএস’র প্রজেক্ট কো-অর্ডিনেটর ম্যামিসিং মারমা।

একেএস’র নির্বাহী কমিটির সদস্য হোসনে আরা খানম ও গ্রাউস’র প্রজেক্ট কো-অর্ডিনেটর সবুজ চাকমার সঞ্চালনায় ওএলএইচএফ প্রকল্পের কার্যক্রম তুলে ধরেন একেএস’র প্রজেক্ট কো-অর্ডিনেটর ম্যামিসিং মারমা। সভায় সম্মানিত অতিথিবৃন্দ নারী দিবসের তাৎপর্য ও প্রকল্পের কার্যক্রমকে কেন্দ্র করে বক্তব্য রাখেন।

বক্তব্য রাখছেন সমাজ সেবা অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক মিল্টন মুহুরী।

সভায় প্রধান অতিথি’র বক্তব্যে জেলা প্রশাসক ইয়াসমিন পারভিন তিবরীজি বলেন, ‘বেগম রোকেয়ার মতো নারীরা প্রতিবাদী ও সংগ্রাম করেছিলেন বলেই আমরা নারীরা আজকের অবস্থানে আসতে পেরেছি। সমাজে নারী নির্যাতনের চিত্রটাকে পাল্টে দিতে হবে।

বক্তব্য রাখছেন অনন্যা কল্যাণ সংগঠনের নির্বাহী পরিচালক ডনাই প্রু নেলী ।

এজন্য মানসিকতার পরিবর্তন খুব জরুরী। সমাজে নারীর প্রতি বিকৃত মানসিকতার পরিচয় যা আমরা প্রত্যক্ষ করছি, সেটা খুবই হতাশার। এজন্য সামাজিক ও মানসিক পরিবর্তন দরকার। এক্ষেত্রে সকল শ্রেণী পেশার মানুষের সক্রিয় অংশগ্রহণ ও দায়িত্বশীলভাবে এগিয়ে আসতে হবে। নারীর প্রতি দৃষ্টিভঙ্গির পরিবর্তন ঘটাতে হবে, এজন্য সকলকে একসাথে কাজ করার বিকল্প নেই।’

বক্তব্য রাখছেন মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক আতিয়া চৌধুরী।

উল্লেখ্য যে, কিশোরী ও নারীদের সামগ্রিক ক্ষমতায়নের লক্ষ্যে সিমাভি নেদারল্যান্ডস ও বাংলাদেশ নারী প্রগতি সংঘ (বিএনপিএস)’র সহযোগিতায় অনন্যা কল্যাণ সংগঠন, গ্রাউস, তহজিংডং বান্দরবান পার্বত্য জেলায় এই প্রকল্পটি ২০১৯ সাল হতে বাস্তবায়ন করছে এবং প্রকল্প কার্যক্রম ২০২৩ সাল পর্যন্ত চলমান থাকবে।

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
About Author

Voicebd Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *